পোড়ামন | পোড়ামন ২ মুভি | PoraMon 2 Movie

পোড়ামন ২ মুভি হল একটি বাংলাদেশী প্রণয়ধর্মী নাট্য চলচ্চিত্র। ছবিটির পরিচালক রায়হান রাফি এবং প্রযোজনায় আব্দুল আজিজ। চলচ্চিত্রটির পরিবেশনায় রয়েছে জাজ মাল্টিমিডিয়া।

পোড়ামন ২ মুভি হল একটি বাংলাদেশী প্রণয়ধর্মী নাট্য চলচ্চিত্র। ছবিটির পরিচালক রায়হান রাফি এবং প্রযোজনায় আব্দুল আজিজ। চলচ্চিত্রটির পরিবেশনায় রয়েছে জাজ মাল্টিমিডিয়া। চলচ্চিত্র অভিনয় করেছেন সিয়াম আহমেদ, পূজা চেরি, বাপ্পারাজসহ অনেকে। এটি সিয়াম অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র।

২০১৮ কান চলচ্চিত্র উৎসবের বাণিজ্যিক শাখায় ছবিটির উদ্বোধনী প্রদর্শনীর পর ১৬ই জুন ঈদুল ফিতরে ছবিটি বাংলাদেশে মুক্তি পায়। ছবিটি ২০১৯ সালে প্রদত্ত বাচসাস পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক বিভাগে পুরস্কার লাভ করে এবং মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারে আটটি বিভাগে মনোনয়ন পায় এবং চারটি বিভাগে পুরস্কার অর্জন করে।

পোড়ামন ২ মুভি - কাহিনী সংক্ষেপে

চলচ্চিত্র শুরু হয় জেসমিনের বাবা কফিলের (ফজলুর রহমান বাবু) হাহাকার দিয়ে। জেস্মিন বিয়ের আগেই প্রেমিকের প্রতারণার শিকার হয়ে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে গলায় ফাঁস দেয়। আত্মহত্যা করার কারণে গ্রামের ইমামের প্রচরনার কারণে গ্রামে লাশ দাফনের অনুমতি পায় না জেস্মিনের বাবা। নদীর এক পাড়ে মেয়ের কবর দিতে বাধ্য হয় তার বাবা। ঘটনার সময়ে সুজন (সিয়াম) ও পরী (পূজা) অনেক ছোট এবং দুই একে অপরের ভালো ভালো বন্ধু। কিন্তু এক ভুল বোঝাবুঝির কারণে সুজনকে প্রহার করে পরীর বাবা। সেই থেকে তাঁদের বন্ধুত্বে ফাটল ধরে।

পোড়ামন | পোড়ামন ২ মুভি | PoraMon 2 Movie

এরপর দশ বছর পার হয়ে যায়। পরী ও সুজন বড় হয়। গ্রামের একটি ছেলে সুজন যে সিনেমায় নায়ক হতে চায়। পরী এখনো ভালোবাসে সুজনকে কিন্তু সুজন পাত্তা দেয় না পরীকে।পরবর্তীতে সুজনও প্রেমে পড়ে। একপর্যায়ে সুজনের ও পড়ী পালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় এবং পালিয়েও যাওয়ার সময় ধরা পড়ে পরীর ভাইয়ের কাছে, পরীর বড় সুজনকে কুপিয়ে জখম করে এবং রাস্তার পাশে ফেলে আসে।

এ ঘটনা পরী দেখে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে এবং সুজন মরে গেছে ভেবে সে ও তার ওয়াদা রাখতে গিয়ে ফাঁস দেয়। সেই রাতেই সুজন তার ক্ষতবিক্ষত শরীর নিয়ে গাছের নিকট এসে তার পরীর আত্মহত্যা করা লাশে ঝুলে থাকতে দেখে। ফাঁসের মরার জানাজা দিতে গ্রামবাসী রাজি হয় না বলে, সুজন ফিরে এসে পরীর লাশকে ছুরিকাঘাতে ক্ষতবিক্ষত করে তা পরীর ভাইর সামনে বলে, “তর ভাই আমারো কোপাইছে এখন আমি তরে কোপাইছি”।

সুজনের এই কথা শুনে পরীর ভাই বেদম পিটায় সুজনকে, পরবতীতে সুজনের ভাই এসে সুজনকে আর প্রহার না করতে মিনতি করে। পরবতীতে তার ভাই সুজকে জিঞ্জাস করে, সে তার ভালোবাসা কে কেন খুন করলো কুপিয়ে?

সুজন বলে, আমি পরীরে বাচায়া দিছি ভাই কারণ সে আমি আসার আগেই ফাঁস নয়েছিলো আর আত্মহত্যা করলে জানাজা হয় না বলে, সুজন তারে কুপাইছে, যার কারণে সবাই জানবে সুজন তারে খুন করছে তবুও পরী তো জানাজা পাইবো। এই কথা কাউকে না বলার অনুরোধ করে সুজন, পরে তার জানাজা পড়ানোর মাধ্যমে পরীকে কবর দেওয়া হয় আর সুজনও মারা যায়।

পোড়ামন ২ - কুশীলব

  • সিয়াম আহমেদ - সুজন শাহ
  • পূজা চেরি - পরী
  • বাপ্পারাজ - সুজনের বড় ভাই
  • ফজলুর রহমান বাবু - কফিল
  • নাদের চৌধুরী - তালুকদার
  • সাঈদ বাবু - মোকসেদ
  • আনোয়ারা - পরীর দাদী
  • রেবেকা রউফ - পরীর মা
  • চিকন আলী - কাঠি
  • পিয়াল - বস্তা
  • সামির - কিশোর সুজন
  • নমনী - কিশোরী পরী

পোড়ামন ২ - নির্মাণ

২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসে পোড়ামন ২ ছবিটির শুটিং শুরু হয়। মেহেরপুর, কুষ্টিয়া ও সিলেটে ছবিটির চিত্রগ্রহণ করা হয়। ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে ভারতে ছবিটির শুটিং পরবর্তী সম্পাদনার কাজ করা হয়। ছবিটি ২০১৮ সালে ৬ জুন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড থেকে বিনা কর্তনে ছাড়পত্র পায়।

পোড়ামন | পোড়ামন ২ মুভি | PoraMon 2 Movie

পোড়ামন ২ - সঙ্গীত

পোড়ামন ২ ছবিটির সংগীত পরিচালনা করেছেন ইমন সাহা, আহমেদ হুমায়ুন, আকাশ সেন এবং রাজা নারায়ণ দেব। ২০১৮ সালের ২৫শে জুন ছবিটির দ্বিতীয় গান ইউটিউবে প্রকাশিত হয়। "ও হে শ্যাম" শিরোনামের গানটিতে কণ্ঠ দেন ইমরান মাহমুদুল ও দিলশাদ নাহার কনা। গানের কথা লিখেন শাহ আলম সরকার ও সঙ্গীতায়োজন করেন ইমন সাহা।

পোড়ামন ২ মুভির গানের তালিকা

নং. শিরোনাম গীতিকার সুরকার কণ্ঠশিল্পী(গণ) দৈর্ঘ্য
১. "কেন পিরিতি বাড়াইলা রে বন্ধু"        
২. "নাম্বার ওয়ান হিরো" প্রিয় চট্টোপাধ্যায় আকাশ সেন আকাশ সেন  
৩. "ও হে শ্যাম" শাহ আলম সরকার ইমন সাহা ইমরান ও কনা  
৪. "সুতো কাঁটা ঘুড়ি" গাজী মাজহারুল আনোয়ার   আকাশ সেন ও নদী  
৫. "পোড়ামন ২ শিরোনাম গান" গাজী মাজহারুল আনোয়ার ইমন সাহা নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি আকাশ সেন
৬. "বোঝেনা আমার এই পোড়ামন"   আহাম্মেদ হুমায়ন আহাম্মেদ হুমায়ন  
৭. "কিছুদিন মনে মনে"        

পোড়ামন ২ মুভি - মুক্তি

২০১৮ সালের ১৩ই মে কান চলচ্চিত্র উৎসবের বাণিজ্যিক শাখায় "হেল অ্যান্ড হেভেন" নামে ছবিটির উদ্বোধনী প্রদর্শনী হয়। পরবর্তীতে ২০১৮ সালের ১৬ই জুন ঈদুল ফিতরে ছবিটি বাংলাদেশে ২১টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়। পঞ্চম সপ্তাহে ১৪টি প্রেক্ষাগৃহ থেকে নেমে গিয়ে আরও ২৪টি প্রেক্ষাগৃহ যুক্ত হওয়ায় মোট প্রেক্ষাগৃহ সংখ্যা দাঁড়ায় ৮৭তে।